Blog

শেষ কিন্তু শেষ নয়

লিটন
রশীদ হল
বুঝলে অনেক ভেবে
তোমার বিয়ের ফর্দ বানিয়ে ফেললাম।
বুকের উষ্ণ রক্তে
তোমার শ্বেতপাথরের পায়ে
আলতা একে দেব,
পোড়া পাঁজর খুলে
তোমার ফুলশয্যার খাট বানাবো-
বিশাল একখানা।
সিগারেটের ধোয়ায়
সেই শয্যার পাশে একে দেব বর্ণহীন মেঘ।
পকেটের রুমালটা হবে তোমার বিয়ের শাড়ি,
কষ্টগুলো হবে তোমার অলংকার।
চোখের মনিটা খুলে এনে
কপালের ঠিক মাঝখানে
টিপ বসিয়ে দেব বিয়ের দিন সকালে।
চোখের জলে নাইয়ে দেব,
দীর্ঘশ্বাসে শুকিয়ে দেব তোমার ভেজা গা।
লজ্জ্বায় অধর রাঙিয়ে দেব,
কল্পনাতে ভাসিয়ে দেব …..
আর পাত্র হিসেবে
এ কাঙাল তো বেঁচে আছে
বলি হবার অপোয়।