Blog

নিশ্চিন্তপুর

দেশের পোশাক বিদেশে পেয়ে- আমার দন্ত বিকশিত হয়,
শাসকশ্রেণীর ওলানে কার্ড ঘষে- আমার সেকি দায়মুক্তির হাসি!
কিন্তু এসবের যারা আসল কারিগর- ওদের হাড়ী ঠেলা থামেনা কোনদিন,
মেয়েগুলোর ঠিক ‘বাংলা পাঁচ’ এর মতো মুখ- ওদের কথা আমি কখনো ভাবিনি।

দেশমাতা আমাকে ‘সিঁড়ি বানানো’ শিখিয়েছিল- নিজ খরচায়,
আমি নিজেই নিজের সিঁড়িটা বানিয়ে পালিয়ে বেঁচেছি- চুলোয় যাক ওরা!
ওদের ঘামে ভেজা চপচপে শরীর- আমি বরাবরই ঘেন্না করি,
আমি নির্ভেজাল মানুষ- সুন্দরের সাথেই কেবল আমার বসবাস।

আমার এই মুহূর্তে পরে থাকা শার্টটাতেও হয়তো- তাজরীনের গন্ধ আছে,
কে জানে- বোতামগুলো যে ভালবেসে লাগিয়েছিল সে এখন পুড়ে তক্তা কিনা!
ওকে ভেবে লাভ নেই।
এই শার্টটা গায়ে চাপিয়ে- কোন বারকন্যাকে আলিঙ্গন করতেও
আমার আজ ন্যূনতম বাধেনা!
স্বদেশপ্রেমের মিথ্যা সন্দেশটা আমি রোজ- খুটে খুটে খাই…