Blog

গুরুচণ্ডালী

যতই গুগলাই কিংবা দীঘির জল ঘোলা করি; তোমাকে পাই না।
নিঃসঙ্গ শহরে কিংবা ব্যস্ত ব্রাউজারে কোথাও তুমি নেই; এমনকি তোমার টিকিটিও নেই!

তোমারে পাইতে পাঁড় ব্রাহ্মণও পৈতা খুইলা ধনুকের ছিপ বানায়, কিন্তু তোমারে পায় না।
তুমি পরিশেষে কোন পুরুষেরে আপনাও? কিংবা আদৌ কি আপনাও!
আমি তোমার দর্শনই পাই না আর তোমারে পাইব তাহা ভাবিলে মুহুর্মুহু হিক্কা ওঠে।
কেউ মাথায় টাস্কি মারা অব্দি আমার হিক্কা থামে না!

তোমাকে নিয়ে কখনো কেউ রিসার্চ পেপার লেখেনি; কিংবা লেখার প্রয়োজন বোধ করেনি।
কিন্তু এ কথা কে না জানে, সাগরেরও তল আছে কিন্তু তুমি সাক্ষাৎ অতলান্তিক!

আলেয়া নাই জানিয়াও আলেয়ার প্রেমে কত পালোয়ান মরিল, আজতক কাহারো পিণ্ডি হইল না।
বোকারা ইহাও জানিয়া যাইতে পারিল না যে, তুমিও দূর থাইকা আলেয়ার মতোই মজা লও।
তোমার প্রেমাতুর চাহনিতে বিদ্ধ হয় দুর্বল হৃদপিণ্ড, তাহা দেখিয়া তুমি খিলখিল খিলখিল হাসো।
নতুন আরেকটা পালোয়ানের ঘাড় মটকাইবার আগ পর্যন্ত তুমি হাসিতেই থাকো!

আমার তোমাকে পাবার প্রাণান্ত চেষ্টা দেখে রবার্ট ব্র“সও বিস্মিত হয়।
আমিও স্পাইডার এর মতন বারবার তোমার প্রেমে পড়ি, একটিবারও প্রেম থেকে উঠে দাঁড়াতে পারি না!
সব কবির মগজ দিয়া খিলিপান বানাইয়াও তোমার তৃপ্তি হয় নাই, সবাইরে নাচাইতে তোমার নান্দনিক সুখ।
কলম্বাস আমেরিকা না খুঁইজা তোমারে খুঁজিলে নির্ঘাত নাকানিচুবানি খাইত। যাই হউক;
তিনি তা করেন নাই এবং এখন বুঝিতেছি তিনি তা বুঝিয়া শুনিয়াই করেন নাই। কারণ;
তিনি এই কাজ যাহাদের উদ্দেশে ছাড়িয়া গিয়াছিলেন তাহাদের লাইফ হেল হইয়া টসটস করিতেছে!