Blog

কৃষ্ণচূড়া

কৃষ্ণচূড়া ফুলের মতো টকটকে লাল তোমার ঠোঁটে,
জানি না কোন কিমতিক্ষণে ফল্গুহাসির বন্যা ছোটে।
জানি না ঠিক কোন কারণে লালচে আরও হয় দুটি ঠোঁট,
কোন কারণে ফুলগুলি সব দাও ছিটিয়ে ওলট পালট।

কৃষ্ণকালো রাতের মতো সুগভীর ঐ তোমার চোখে,
জানি না কোন কাজল মায়ায় যাই তলিয়ে স্বপ্নালোকে।
জানি না ঠিক কোন কারণে আয়তলোচন ঐ দু’টি চোখ,
রাত্রি হয়ে করছে গ্রাস পাপড়ি তবু করছে না শোক।

সুকেশিনী এলোকেশী নাক গুঁজে দেই তোমার চুলে,
জানি না কোন ইন্দ্রজালে যাই জড়িয়ে মস্ত ভুলে।
জানি না ঠিক কোন কারণে কুঁচবরণ ঐ সুদীর্ঘ চুল,
হাওয়ায় উড়ে দিন দুপুরে করছে আমায় বড্ড ব্যাকুল।

পিরামিডের চূড়ার মতো সূচাগ্র তোমার নাকে,
জানি না কোন শিল্পী এসে মস্কোদেশের ঘণ্টা আঁকে।
জানি না ঠিক কোন কারণে বংশীবাদক বাজায় ও নাক,
কোন কারণে নাকের ফুলে মিটমিটিয়ে জ্বলছে জোনাক।

জানি না আজ কোনো কিছুই, জানি শুধু কৃষ্ণচূড়া,
ফুটুক হাসি তোমার ঠোঁটে, হোক অধুরা স্বপ্ন পুরা।
তোমার চোখে সূর্য ডুবুক তোমার চুলে জ্বলুক তারা,
তোমার সামনে আসলে পরে থমকে থাকুক উপমারা।