Blog

অশাব্দিক

ব্যর্থ আমি।
বর্ণগুলো আর পারছি না ধরতে,
হাঁটু ভেঙে গড়িয়ে পড়ছে সর্বশেষ পঙক্তি।
ছন্দের পিছে ছুটছি অকারণ,
যেন আমি গাধা, ও মুলো।

ক্লান্ত আমি।
পা দুটো ভারী হতে হতে,
আচমকা বনে গেছি পক্ষাঘাত মূর্তি।
আমাকে মুক্তি দাও কথা,
আমি ছুটে চলি অগস্ত্য শব্দহীন পথে।

অসুস্থ আমি।
মৌনতাই ওষধি,
নিস্তব্ধতার দানাগুলো আমি গিলে ফেলি গোগ্রাসে।
তবুও মেলে না শান্তি,
গোল আর অস্থিরতা বোধ করি ভিতরেই কোথাও।

ধ্বংস আমি।
মনে পড়ে শুধু মাংস ও মন,
ভ্যাকুয়ামে পুরে ফেল অতৃপ্ত আমাকে।
ছাইভস্ম কিংবা দানবীয় দাবানলে,
পিষে ফেল মরে যাওয়া নদীর মতন।

নিঃস্ব আমি।
শব্দহীন কিংবা প্রেমহীন প্রাণ,
ঠিকঠাক চিনে নেয় শুধু অন্ন-বস্ত্র-সংস্থান।
বেঁচে থেকে লাভ কী বল,
যদি কবিতাই হারিয়ে যায় খসে পড়া তারার মতন!